‘বায়োফ্লক’ চাষ, সম্ভাবনাময় অর্থনীতি’র বাংলাদেশ

0
63
নিউজটি শেয়ার করুন।
  • 121
  •  
  •  
  •  
  •  

মো.ওসমান গনিঃ নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টির বিষ্ময়কর আবিষ্কার জানতে চলে আসুন আগামী (২৭ নভেম্বর) শুক্রবার নিন্মে দেয়া ঠিকানায়। আসুন, জানুন এবং সাহস নিয়ে এগিয়ে যান সফলতা আসবেই। 

‘বায়োফ্লক’ বাংলাদেশে মাছ চাষে নতুন কনসেপ্ট। বিগত দিনগুলোতে আমরা পুকুরে অনেক বড় জায়গা নিয়ে মাছ চাষ করতাম। বায়োফ্লক, মাছ চাষকে আমাদের দোরগোড়ায় এনে দিয়েছে। বাড়ির ছাদে, ঘরের আঙিনায় আমরা ছোট ট্যাংক করে মাছ চাষ করতে পারি। বায়োফ্লকে মাছ চাষে জায়গা কম লাগে। ইনভেস্টমেন্ট কম, সিকিউরিটি নিজেই নিশ্চিত করতে পারি। চাকরি ও নিজেদের ব্যবসার পাশাপাশি ছোট পরিসরে আমরা ছোট টাকা ইনভেস্ট করে পরিবারের বাড়তি একটা ইনকামের ব্যবস্থা করতে পারি বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষ করে।

বায়োফ্লক বাংলাদেশে আসার পর পথ হারিয়ে ফেলেছে নানাবিধ কারনে। অল্প ইনভেস্ট করতে হয় বলে আমরা বায়োফ্লক পদ্ধতি সঠিক ভাবে না জেনে, না বুঝে মাঠে নেমে পড়েছি। মাঝপথে খেই হারিয়ে বায়োফ্লকে লস করছি৷ ওয়াটার প্রিপারেশন করতে ভুল করছি, মাছের রোগ হলে ভুল চিকিৎসা দিচ্ছি, ট্যাংকে অক্সিজেন কতটুকু রাখতে হবে তা না জেনে এয়ারেশন মেশিন বসাচ্ছি। পরিনাম হচ্ছে ভয়াবহ। এভাবে চলতে থাকলে বায়োফ্লক ইন্ডাস্ট্রিটা অচিরেই হারিয়ে যাবে।

তো এর থেকে উত্তরণে সঠিক উপায় কি? প্রয়োজন সঠিক নির্দেশনা। মাছের ফিড কস্ট বেশি আসছে। বিক্রয় করতে গেলে সঠিক দাম পাচ্ছি না। উপায় কি? প্রয়োজন সঠিক নির্দেশনা। মাছের অজানা রোগে মাছ মরে সাফ৷ উদ্যোক্তার মাথায় হাত। উত্তরনের উপায় কি? প্রয়োজন সঠিক নির্দেশনা। পোনা কিনতে গিয়ে দামে ঠকছি, পরিমানে ঠকছি। প্রয়োজন সঠিক নির্দেশনা।

এইসব চিন্তা করে আমরা কয়েকজন উদ্যোক্তা সামনে এসেছি। গুরু দায়িত্ব কাঁধে নিয়েছি। শপথ করেছি, বায়োফ্লক ইন্ডাস্ট্রি টাকে হারিয়ে যেতে দেবো না। সামনে থেকে কাজ করে যাবো। এই লক্ষ্যে আমরা ফেসবুকের কিছু গ্রুপ আজ একত্রিত হয়েছি। সিদ্ধান্ত নিয়েছি, যা করবো একসাথে করবো। বায়োফ্লক ইন্ডাস্ট্রি টাকে একসাথে তুলে ধরবো। কাজ করে যাবো একসাথে।

এই লক্ষ্যে আমরা আমাদের প্রথম সেমিনার আয়োজন করতে যাচ্ছি। স্বাভাবিক ভাবেই একটা বড় এবং প্রফেশনাল সেমিনার আয়োজন মুখের কথা নয়। হল ভাড়া নিতে হয়, চেয়ার টেবিল ভাড়া নিতে হয়, গেস্টদের খাবার খরচ আছে, প্রজেক্টরে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন করার ব্যবস্থা করতে হয়, সাউন্ড সিস্টেম ভাড়া নিতে হয়। শুধু তাই নয়, যারা এই সেমিনারের উদ্যোক্তা, তারা দূর দূরান্ত থেকে ঢাকা শহরে আসছে, তাদের থাকার বন্দোবস্ত করতে হয়। যেসব আলোচক আসবেন, তাদের জন্য ছোট সম্মানির ব্যবস্থা করতে হয়। আর এত কিছু তো সব নিজের পকেটের টাকা পয়সা খরচ করে কি করা সম্ভব? তাই আমাদের বাধ্য হয়েই একটা রেজিস্ট্রেশন ফি রাখতে হয়েছে। সামনে হয়তো আমরা এমন ব্যবস্থা করবো যাতে আর রেজিস্ট্রেশন ফি নিতে না হয়।

যাই হোক, আমরা তরুণ উদ্যোক্তারা চেষ্টা করবো একটা সফল সেমিনার আয়োজন করতে, যাতে করে আমাদের কথা আপনাদের মুখে সবসময় উচ্চারিত হয়। আমরা যাতে আমাদের জ্ঞান আপনাদের দিতে পারি এবং আপনাদের থেকে নিজেরাও জ্ঞান আহরন করতে পারি। আপনাদের কাছে আমাদের দাবি থাকবে, আসুন, একসাথে কাজ করি। বায়োফ্লক যেনো একদিন এক্সপোর্ট ইন্ডাস্ট্রি হিসেবে দাড়িয়ে যেতে পারে, সেই লক্ষ্যে আমরা কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে একসাথে কাজ করি।

বি.দ্র. এই সেমিনার কোন গতানুগতিক ট্রেনিং প্রোগ্রাম নয়। এখানে কেউ আপনাকে ট্যাংক সেটআপ আর এফ সি ও শিখাবে না। এটা একটা সেমিনার। এখানে পুরোনো খামারিদের বিভিন্ন সমস্যা, রোগবালাই এবং অক্সিজেন, নাইট্রেট, নাইট্রাইট, ফুড কনভারসেন রেসিও (FCR) এবং বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে বেশি আলাপ হবে৷

বায়োফ্লককে কিভাবে ভবিষ্যতে কাজে লাগানো যাবে তা নিয়ে আলাপ হবে। যে সব ফেসবুক গ্রুপগুলো আয়োজক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে- ১. বায়োফ্লক বাংলাদেশ (Biofloc Bangladesh) ২. Biofloc GuideLine (BD) ৩. বায়োফ্লক প্রজেক্ট আলোচনা ও গবেষণা Biofloc Fish Farm ৪. Biofloc fish farming support Bangladesh ৫. AR, Biofloc fish farm ৬. Biofloc/ বায়োফ্লক প্রযুক্তি ৭. বায়োফ্লক তথ্যভাণ্ডার ৮. Biofloc Society of Bangladesh. ৯. মৎস্য কুঠির।

#SmileNews #HA


নিউজটি শেয়ার করুন।
  • 121
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here